ALL Bangla Post

যৌবনে অশ্বগন্ধার উপকারিতা, নিয়ম, পাউডার, টিংচার, সিরাপ

যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে অশ্বগন্ধার উপকারিতা ও খাওয়ার নিয়ম

ট্যাবলেট , ক্যাপসুল বা পাউডার হোমিওপ্যাথিক ন্যাচারাল যেভাবেই হোক বিভিন্ন নিয়মে বিভিন্ন সময়ে সেবন করতে হয় এবং তাতে উপকার পাওয়া যায় বিশেষ করে আমি হোমিওপ্যাথিক মাদার টিংচার ব্যবহার করতে বলি তাতে রোগী এক সপ্তাহ পরে এসে রোগী বলে আমি অনেক উপকৃত হয়েছি। তাই আপনাদেরকে অনুরোধ ,আপনারা এটি ব্যবহার করতে পারেন কোন রকমের সাইড ইফেক্ট নাই বললেই চলে। তবে সেবনবিধি অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী হতে হবে।

অশ্বগন্ধা কি বা পরিচয়

  • এটার বৈজ্ঞানিক নাম:  Withania Somnifera.
  • সংস্কৃতিক নাম অশ্বগন্ধা। 
  • এই মেডিসিন কারা তৈরি করে: অশ্বগন্ধা এমনই একটি ন্যাচারাল মেডিসিন যাহা হোমিওপ্যাথিক ,আয়ুর্বেদিক ,হারবাল কোম্পানিরা বিভিন্ন পদ্ধতিতে মেডিসিন আকারে তৈরি করে থাকে।

সাধারনত পাতা, ডাল, ফুল, ফল, মূল, ছাল ইত্যাদি সবকিছুই মেডিসিন আকারে ব্যবহার করা হয়। এই গাছ ২-৩ হাত উঁচু হয় এবং এর সাথে ডালপালা ছড়িয়ে শাখা বৃদ্ধি করে।  ইহার ফুলগুলো সবুজ এবং মোটর এর মত ছোট ছোট ফল হয়ে থাকে।

যৌবনে অশ্বগন্ধার উপকারিতা ও খাওয়ার নিয়ম

পুরুষের যৌবন সারা জীবন ধরে রাখতে ভূমিকা:

মানুষের যৌবন কাল সারা জীবন থাকে না এটাও যেমন সত্য ঠিক আরেক সত্য কথা হলো পুরুষের যৌবন সারা জীবন ধরে রাখা সম্ভব যদি তারা কিছু নিয়ম মেনে চলে।

প্রতিটি সমস্যার সমাধান হয়েছে। আমরা হয়তো সমাধান খুঁজতে চাই না তাই নিজেরা  নিজেরাই হেরে যাই। এটা বিভিন্ন আকারের বাজারে পাওয়া যায় তবে সম্পূর্ণ ন্যাচারাল হতে হবে এটার সাথে বিভিন্ন কেমিক্যাল মিশিয়ে বাজারে পাওয়া যায় অরিজিনালটা পাওয়া মুশকিল। তাই আপনারা ওরজিনাল সঠিক নিয়মে সেবন করলে আপনি কখনো বিদ্ধ হবেন না। আপনার যৌবন হান্ডেট পার্সেন্ট সারা জীবন থাকবে। কখনো স্ত্রীর কাছে লজ্জা পেতে হবে না।

স্বামী-স্ত্রী মিলনে সময় কতক্ষণ পারবে:

স্ত্রী সহবাসে কত সময় বৃদ্ধি পাবে এটি আসলে কেউই বলতে পারে না। এটি সম্পূর্ণ নির্ভর করে রোগীর নিজের উপরে। বিশেষ করে মানসিক অবস্থা যার বেশিক্ষণ স্থির রাখতে পারবেন সেই বেশি রেজাল্ট পাবেন। তাই আমরা অতি দ্রুত উত্তেজিত না হয় আস্তে আস্তে উত্তেজিত হই। এবং আমার এই ওয়েবসাইটে কিভাবে স্ত্রী সহবাস করবেন এ ব্যাপারে একটি টিপস দেওয়া আছে এটি মেনে চলুন এবং এই ওষুধ সেবন করুন অবশ্যই উপকৃত পাবেন তবে বর্তমান যতোটুকু সময়ে স্ত্রীকে দিতে পারেন তার তিন থেকে চার গুণ অবশ্যই বাড়িয়ে দেবে আপনারা নির্দ্বিধায় সেবন করতে পারেন।

মানসিক সমস্যা অশ্বগন্ধার উপকারিতা ও খাওয়ার নিয়ম

আমাদের সচরাচর যে যৌন সমস্যা গুলি হয় সেগুলি সাধারণত মানসিক ভাবে আনফিট থাকা হয় বলে এ ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে। আমরা কখনো শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ি আবার কখনো মানসিকভাবে তৈরি না হওয়ার কারণে স্ত্রীকে বেশিক্ষণ সময় দিতে পারি না। দিলেও সাথে সাথে বীর্য বের হয়ে যায় তাই আমাদের উচিত মানসিকভাবে নিজেকে অটুট রাখা অশ্বগন্ধা মানসিকভাবে শক্তিশালী করার ক্ষমতা রাখে। 

তাই আমরা সারাদিন বিভিন্ন রকমের মানসিক ঝামেলা পেরিয়ে এসে বাসায় আসি সব সময় মন মেজাজ একরকম থাকে না অশ্বগন্ধা সেবন করলে আপনার মানসিকভাবে প্রফুল্ল নিয়ে আসবে আপনার মস্তিষ্ক সচল হয়ে যাবে আপনার স্ত্রীকে সময় দিতে পারবেন এবং নিজেকে অনেক রোমান্টিক মনে হবে।  সম্পূর্ণ মানসিক স্বস্তি দিতে সক্ষম এই ওষুধ।

হোমিওপ্যাথিক অশ্বগন্ধা 200

আর্থাইটিস বাত জনিত ব্যথা হলে

আপনারা যারা যৌন দুর্বলতার সহ বিভিন্ন  বাত রোগে ভুগতেছেন তাদেরকে আমি বলব সেবন করতে। বাতের ব্যাথা সহ বিভিন্ন রকমের জটিলতায় সমাধান পাওয়া যায়। আর্থাইটিস ও বিভিন্ন রকমের বাত রোগের আমাদেরকে চমৎকার উপকার করে।

ডায়াবেটিসের রোগে

যে সমস্ত রোগীদের ডায়াবেটিকস আছে এবং সাথে যৌন সমস্যা দেখা যায় তাদেরকে আমি বলব এই অশ্বগন্ধা সেবন করুন। এটি মানবদেহের সকল অঙ্গ কে শক্তিশালী করে এবং রক্ত চলাচলের গতি স্বাভাবিক করে বিদায় আপনার ডায়াবেটিস থাকলেও যৌন ক্ষমতা বেড়ে যাবে।

সাধারণত ডায়াবেটিস হলে যৌন ক্ষমতা হ্রাস পায় কিন্তু যদি আপনি সঠিক নিয়মে এই মেডিসিন সেবন করতে পারেন তাহলে আপনার ডায়াবেটিসজনিত যৌন দুর্বলতা অতি তাড়াতাড়ি উপকার পাবেন।

ডায়াবেটিকস যাদের থাকে তারা এমনিতেই অনেক ওষুধ খেতে হয় তার ভিতরে বাড়তি ওষুধ খাওয়া যায় না। কিন্তু ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করবে এবং আপনার শরীরকে সতেজ রাখেবে যার ফলে ডায়াবেটিসজনিত যৌন দুর্বলতায় বিশেষ উপকার পাবেন।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে অশ্বগন্ধার উপকারিতা

মানুষের শরীরের জীবনীশক্তি থাকে যাহা রোগজীবাণু বাহিরের শক্তিকে শরীরের ভিতরে ঢুকতে বাধা সৃষ্টি করে। যার ফলে আমাদের শরীরে সাধারণ রোগ ব্যাধি ঢুকতে পারে না এর জন্য আমাদের জীবনীশক্তি সারা দিন রাত 24 ঘণ্টা কাজ করে থাকে। এক কথায় জীবনীশক্তি রোগ শক্তির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে থাকে। কিন্তু যদি এই জীবনীশক্তি দুর্বল হয়ে পড়ে তখন রোগ শক্তি আমাদের শরীরকে দুর্বল করে ফেলে।

আমাদের দেহকে শক্তিশালী করার জন্য রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে হবে মানে জীবনীশক্তির ক্ষমতা বাড়াতে হবে এর জন্য বিভিন্ন রকমের ন্যাচারাল খাবার খেয়ে থাকি কিন্তু যে খাবারগুলো খেলে সঠিক ভাবে ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় না। এক্সট্রা বৃদ্ধি পাওয়ার জন্য সেবন করলে নিজের শরীরকে  শক্তিশালী রাখা সম্ভব এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে এই ঔষধ সেবন করলে।

ভালো ঘুমের জন্য:

যাদের সঠিক ভাবে ঘুম আসে না বিশেষ করে মানসিক পরিশ্রম করার পরে। মানসিক চিন্তায় ঘুম আসেনা বিভিন্ন রকমের স্বপ্ন দেখেন এবং তার কাজগুলো ঘুমের ভিতর করে ফেলে এ ধরনের ঘুমের ব্যাঘাত ঘটলে সেবন করুন।  এই মেডিসিন এর ভিতরে এমন একটি ন্যাচারাল পাওয়ার রয়েছে যা গভীর মনোযোগী হয়ে ঘুমিয়ে পড়বেন।

হার্টের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে বাড়িয়ে দিতে সহায়তা করে:

আপনার যদি যৌন সমস্যা সহ হার্টের সমস্যা থাকে তাহলে এই অশ্বগন্ধা ওষুধ সেবন করতে পারবেন। এমনকি যদি হাই ব্লাড প্রেসার থাকে তাহলে এই ওষুধ সেবন করলে আপনার কোন ক্ষতি হবেনা।  বরংচ উপকৃত হবেন তাই আপনারা  এই ওষুধটি ঘরে রাখুন।

স্নায়ুতন্ত্রে  ইহার কার্যক্ষমতা

এই ওষুধটি ব্যবহার করলে দেখা যায় বিভিন্ন রকমের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। তাই বিভিন্ন ইউনিভার্সিটি এবং বিভিন্ন কোম্পানি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা গেছে যে এটি স্নায়তন্ত্রর কাজ করে।  নির্দ্বিধায় আপনারা ওষুধ সেবন করতে পারবেন।

অ্যাড্রিনালিন

মানবদেহে কিডনির উপরের অংশে অ্যাড্রিনালিন থাকে।  সেখানে বিভিন্ন রকমের সমস্যা দেখা যায়। এই রোগের জন্য ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করতে পারেন।

সাপের বিষে

আগের দিনে সাপের বিষ ধ্বংস করতে অশ্বগন্ধা ব্যবহার করা হতো।  কিন্তু বর্তমানে উন্নত মানের চিকিৎসা থাকায় এর ব্যবহার বেশি একটা দেখা যায় না। তাই আপনারা সাধারন কোন জীব জানোয়ারের  কামড় দিলে এর মাদার টিংচার ব্যবহার করলে উপকার পাওয়া যায়। তবে যদি কোন সাপে কামড় দেয় উন্নত চিকিৎসার জন্য নিকটস্থ হাসপাতালে চলে যান এবং উন্নত চিকিৎসা  করুন।

লাবণ্যময় করতে ব্যবহার

এই ওষুধটির ভিতর একটি ন্যাচারাল পাওয়ার রয়েছে যাহা শরীরকে স্ট্রং রাখার মেডিসিন বলা হয়। যেটি হল শরীরকে সতেজ রাখা বা টেকসই রাখতে মাদার টিংচার সেবন করা অতি জরুরী।

চুলের জন্য অশ্বগন্ধার মাদার টিংচার

সঠিক নিয়মে ব্যবহার এবং সেবন করলে চুলের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান হয়।

মহিলাদের রোগে:

মহিলাদের বিভিন্ন গোপনীয় রোগের ওষুধ।  বিশেষ করে মাসিকের সময় কোমরের ব্যথা এবং জরায়ু বা মাসিক সংক্রান্ত জটিলতা এর কাজ করে।

ধ্বজভঙ্গ রোগে অশ্বগন্ধার উপকারিতা

যে সমস্ত রোগী ধ্বজভঙ্গ হয়ে পড়ে আছেন। বিয়ে করতে ভয় পাচ্ছেন তাদের জন্য খুবই কার্যকরী।

পেট ফুলে গেলে বায়ুজনিত:

পেটে বায়ু জমলে অনেক সময় পেট ফুলে যায় সেই ক্ষেত্রে দারুন কাজ করে।

বৃদ্ধ বয়সেও যৌন শক্তি বাড়িয়ে দেবে

ইহা এমন একটি মেডিসিন 80 বছরের বৃদ্ধকেও সেবন করালে 30 বছরের যুবকের মত কাজ চালিয়ে যেতে পারবে এবং বৃদ্ধ বয়সে স্মৃতিশক্তি হ্রাস পেলে এই মেডিসিনটি  দ্রুত কাজ করবে এবং শরীরকে শক্তিশালী করবে দ্বিগুণ হারে।  তাই বৃদ্ধ বয়সেও টাইম বাড়াতে ব্যবহার করা যাবে।

পুরুষের লিঙ্গ নিস্তেজ হয় পড়ে থাকলে

যৌবনকালে বিভিন্ন রকমের লিঙ্গের উপর জুলুম করা হলে বিয়ের পরে লিঙ্গ নিস্তেজ হয়ে যায় এমন সময় অশ্বগন্ধা ব্যবহার করলে অনেক বেশি উপকার পাওয়া যায়। যাদের লিঙ্গ একেবারে নিস্তেজ দাঁড়ায় না তাদের জন্য চমৎকার কাজ করে।

দুধ বৃদ্ধিতে ব্যবহার

বাচ্চা হওয়ার পরে অনেক মহিলাদের স্তনে দুধ আসে না। বা আসলেও কম হয়ে থাকে তাদের ক্ষেত্রে এই মেডিকেল আইটেমটি খুব ভালো কাজ করে।

শারীরিক পরিশ্রম

আমরা প্রতিদিন সকাল হলে বিভিন্ন কাজে বের হয়। সেই ক্ষেত্রে শরীর থেকে জলীয় অংশ বের হয়ে যায়।  কিছু মানুষের আছে প্রচুর ঘাম ইহাতে শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে। এমনকি কাজ করতে করতে হাঁপিয়ে যায় এবং বিভিন্ন পরিশ্রমজনিত দুর্বলতা আশীর্বাদস্বরূপ।  আমরা হয়তো মনে করি অশ্বগন্ধা যৌন দুর্বলতায় কাজ করে কিন্তু আসলে বিভিন্ন ডাক্তাররা বিভিন্ন রোগে ব্যবহার করে দেখেছেন এবং গবেষণা করে দেখা গেছে 50 টার উপরে এই মেডিসিন কার্যকারী।

ফোড়া হলে

অশ্বগন্ধার কাঁচা পাতা, ফল বেটে ফোঁড়ার উপরে প্রলেপ দিলে উপকার পাওয়া যায়।

হোমিওপ্যাথিক অশ্বগন্ধার অপকারিতা

প্রতিটি মেডিসিন এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া আছে। তবে সঠিক মাত্রায় ব্যবহার করতে  পারলে বেশি বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা যায় না। নিম্নে ইহার অপব্যবহারের বা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

  • বেশিদিন সেবন করলে বা বেশি মাত্রায় ব্যবহার করলে ঘুমের প্রবণতা বেড়ে যেতে পারে। তাই গাড়ি চালানো যে কোন প্রকার ড্রাইভিং কাজে সাবধানতার  সাথে ব্যবহার করা উচিত।
  • এই ওষুধটি দাঁত তোলার সময় ব্যবহার করা উচিত নয়। কেননা রক্ত চলাচল  বাড়িয়ে দেয়। রক্ত পাতলা করে ফেলে। তাই যেকোনো অপারেশনের ক্ষেত্রে সাবধানতার সাথে ব্যবহার করতে হয়।
  • এই ওষুধের লক্ষণগুলো শরীরের বা মনের দিক থেকে না মিললে বমি বমি ভাব ,মাথা ঘুরানো ,পেটের ব্যথা ,পাতলা পায়খানা ইত্যাদি দেখা দিতে পারে এবং হোমিওপ্যাথিক ওষুধে মাথা বার হতে পারে এর জন্য অনেকদিন এই ঔষধটি  সেবন করতে চাইলে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে সেবন করুন।
  • এই ওষুধটির অপব্যবহার বা অতিরিক্ত মাত্রায় ব্যবহার করা উচিত নয়।

যেভাবে বাজারে সাধারণত পাওয়া যায়:

সিরাপ :-

ট্যাবলেট :-

খাঁটি অশ্বগন্ধা পাউডার :-

অশ্বগন্ধা হোমিওপ্যাথি মাদার টিংচার

এই প্রোডাক্টটি সবচেয়ে বেশি উপকার পাওয়া যায়। ইহার হোমিওপ্যাথি মাদার টিংচারে বাংলাদেশি 20 থেকে 30 ফোঁটা করে দুই চামচ পানিতে মিলিয়ে তিনবার , একমাস সেবন করলে যৌন সমস্যায় স্থায়ী সমাধান পাওয়া যায়। তবে ক্রনিক ডিজিজ এর ক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী অনেকদিন সেবন করতে হবে।

এর দাম:

অশ্বগন্ধা সবচেয়ে বেশি কাজ করে যে রোগে

  • পুরুষের সহবাসে সময় বাড়াতে টনিক হিসেবে কাজ করে।

আরো জানুন: হোমিও ওষুধের নাম ও কাজ, চিকিৎসা, খাওয়ার নিয়ম।

✅ ✅ অরজিনাল জার্মানি হোমিও ঔষধ নিতে চাইলে যোগাযোগ করুন

Please subscribe to my channel and follow

Facebook Page

YouTube